অসতর্ক সঙ্গমও যখন পুরোপুরি নিরাপদ!

অসতর্ক সঙ্গমও যখন পুরোপুরি নিরাপদ!

সন্তান যে কোনও দম্পতির কাছে একটা আশীর্বাদ হিসেবে আসে। এ কথা কি কেউ অস্বীকার করতে পারে? না, বিশেষ করে যারা একটা ফুটফুটে একরত্তির মুখ চেয়ে বসে আছে, তাদের কাছে কনসিভ করার আনন্দ যে কী, তা বোধ করি ভাষায় লিখে প্রকাশ করা অসম্ভব। আবার এর ব্যতিক্রমও আছে বই কি! আধুনিক যুগের বেশির ভাগ স্বামী- স্ত্রী নিজেদের কেরিয়ার সংক্রান্ত কারণেই হোক বা আর্থিক নিরাপত্তার কারণেই হোক, বিয়ের ঠিক পরে পরেই সন্তান নিতে চায় না। অসময়ে আসা অবাঞ্ছিত সন্তান তাদের কাছে আশীর্বাদ তো নয়ই, বরং বিপদ বলা চলে। মন সায় না দিলেও, পরিস্থিতির চাপে কঠিনতম সিদ্ধান্ত নিতেও বাধ্য হয় অনেক মা। Sex-এর সময় যথাযথ প্রোটেকশন নিলে এই অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সির ভয় অনেকটাই কমে যায় বা থাকে না বললেই চলে। তবে জানেন কী, মাসের মধ্যে কখন গর্ভনিরোধক ওষুধ না খেয়ে বা প্রোটেকশন না নিয়ে সঙ্গীর সাথে মিলিত হলেও প্রেগন্যান্ট হওয়ার ভয় প্রায় থাকে না? Kokhon sohobas korle bachha hoy na. Best time for sex to avoid pregnancy in Bangla. কোন সময় সহবাস করলে গর্ভধারণ হবার সম্ভাবনা থাকে না?

প্রোটেকশন ছাড়া Sex-এর ক্ষেত্রে মহিলাদের নিরাপদ সময় কখন? (Best time for sex to avoid pregnancy in Bangla)

মাসের মধ্যে প্রত্যেকদিন মহিলারা চাইলেই মিলনের মাধ্যমে কনসিভ করতে পারে, এই ধারণা একেবারেই ভুল। প্রত্যেক মাসে এমন কয়েকটি দিন আছে,যখন তারা চাইলেও কনসিভ করতে পারে না। বিজ্ঞানসম্মত ভাবে বলতে গেলে,মহিলাদের শরীরে যখন ওভাম বা ডিম থাকে না, তখন তারা প্রেগন্যান্ট হতে পারে না। কাজেই কোনও মহিলা যদি গর্ভনিরোধক ওষুধ খেতে না চায় বা তার পুরুষ সঙ্গী Condom ছাড়া Sex- এ আগ্রহী হয়, তা হলে মাসের এই বিশেষ দিনগুলোর কথা মাথায় রাখা প্রয়োজন। মহিলাদের মাসিক/ঋতুস্রাব সাইকেলের এই দিনগুলোই অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সি এড়ানোর জন্য উপযুক্ত বলে মনে করা হয়। যে সমস্ত মহিলাদের প্রত্যেক মাসে নিয়মিত পিরিয়ডস বা মাসিক হয়, তাদের জন্য এই ‘নিরাপদ দিন’ হিসেব করা খুবই সহজ এবং কার্যকরীও হয়ে থাকে।  Safe Days To Have Sex To Avoid Pregnancy, According To Science.

আপনার নিরাপদ দিন কোনগুলি, তা কীভাবে হিসেব করবেন? (How to calculate your safe days to avoid pregnancy?)

সবথেকে সহজ উপায় হল এটা জানা, যে কনসিভ করার সম্ভাবনা কখন সবচেয়ে বেশি থাকে। মাসের মধ্যে ওই দিনগুলো বাদ দিলেই ‘নিরাপদ দিন’ আন্দাজ করা সম্ভব হয়। মহিলাদের মাসিক চক্র বা মেন্সট্রুয়াল সাইকেলকে সাধারণত তিন পর্যায়ে ভাগ করা হয়ে থাকে। ওভুলেশনের আগের পর্যায়, ওভুলেশনের পর্যায় এবং ওভুলেশন পরবর্তী পর্যায়। যেহেতু, প্রত্যেক মহিলার শারীরিক অবস্থা ও শরীরে হরমোনের মাত্রা আলাদা হয়, তাই এই পর্যায়গুলিও সবার ক্ষেত্রে আলাদা হয়ে থাকে। সাধারণভাবে, একজন সুস্থ মহিলা এবং যার নিয়মিত পিরিয়ডস হয়, তার ক্ষেত্রে পুরো মেন্সট্রুয়াল সাইকেল ২৮ দিনের ধরা হয়ে থাকে। ওভুলেশন পিরিয়ড হল, যখন মহিলার শরীরে ওভাম বা Egg তৈরি হয়। এই ওভাম তৈরির আগে বা পরে কিছুদিন কনসিভ করার সুযোগ সবথেকে বেশি থাকে। এই ওভুলেশন পিরিয়ড বুঝতে পারলে, মাসের মধ্যে নিরাপদ দিন হিসেব করাই যায়। একটি নিয়মিত মাসিক চক্রের অর্থাৎ ২৮ দিনের মাসিক চক্র হলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ১৪ তম দিনে ওভুলেশন হয়। প্রত্যেক মহিলার ক্ষেত্রে এই ওভুলেশনের সময় আলাদা হয়ে থাকে। দেখা গেছে, মাসিক চক্রের ১২ থেকে ১৯ দিনের মধ্যেই সাধারণত ওভুলেশন হয়ে থাকে। ওভামের আয়ু একদিন বা ২৪ ঘণ্টা হলেও শুক্রাণু বা sperm মহিলার দেহে ৩-৬ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। তাই ওভাম নিঃসরণের ৪-৫ দিন আগেও যদি কেউ প্রোটেকশন ছাড়া শারীরিক ভাবে মিলিত হয়ে থাকে, তা হলে কনসিভ করার সম্ভাবনা বাড়ে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি ওভাম নিষিক্ত না হয়, তা হলে সেটি নষ্ট হয়ে যায়।

এই ওভুলেশন এবং তার আশেপাশের কয়েকটি দিন হিসেব মতো বাদ দিলে, বাকি দিনগুলি Unprotected sex এর জন্য নিরাপদ বলে গণ্য করা হয়। How To Calculate Safe Days For Not Getting Pregnant!

মাথায় রাখুন কিছু কথ (Keep these in mind)
  • প্রত্যেক মহিলার ক্ষেত্রে এই ওভুলেশন সাইকেল আলাদা আলাদা হয় বা হরমোনের মাত্রার তারতম্য হয়। কাজেই প্রোটেকশন ছাড়া ‘নিরাপদ দিন’-এ শারীরিক ভাবে মিলিত হলে যে আপনি কনসিভ করবেন না, এটা একেবারেই নিশ্চিত নয়। এইসব দিনে কনসিভ করার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়, কিন্তু একেবারেই যে নেই তা নয়।
  • শারীরিক মিলনের সময় প্রোটেকশন নেওয়া দুজনের শরীরের জন্যও ভালো এবং অবাঞ্ছিত গর্ভধারণ রোধ করতে সাহায্য করে।
  • গর্ভনিরোধক ওষুধ খেলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে খান। Best time for sex to avoid pregnancy.
একজন মা হয়ে অন্য মায়েদের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে চান? মায়েদের কমিউনিটির একজন অংশীদার  হয়ে যান। এখানে ক্লিক করুন, আমরা আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করব।

null

null